জুরাইন মাছ বাজারে ব্যাপক চাঁদাবাজি:আদালতে মামলা

স্টার বাংলা নিউজ: রাজধানীর জুরাইনে ‘জুরাইন বাজার ব্যবসায়ী মালিক সমবায় সমিতি’ শুধু মাছ বাজার থেকে প্রতিদিন অর্ধলক্ষ টাকা চাঁদা উঠছে। প্রতিমাসে প্রায় ১৪লক্ষ টাকা চাঁদাবাজি হচ্ছে। এ চাঁদাবাজিকে কেন্দ্র করে সেখানেই গড়ে উঠছে অবৈধ সিন্ডিক্যাট। এই চাঁদাবাজি প্রতিরোধে এরইমধ্যে আদালতে মামলা করেছেন আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মোহাম্মদ উল্লাহ জামশেদ।

আদালতে সি,আর মামলা নং/১৮ বিবরণে ১ নাম্বার আসামী করা হয়েছে-মাশুক রহমান, মো. ফারুক, জহিরুল আলম, মহিউদ্দিন, মো. দিদারুল আলম ও কামালসহ অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জন। মামলার বিবরনে উল্লেখ করা হয়, উল্লেখিতরা সন্ত্রাসী-দুর্দান্ত দাঙ্গাবাজ। তারা অন্যের সম্পদ লুন্ঠনকারী এবং এলাকার চিহিৃত সন্ত্রাসী। এরা সম্প্রতি শ্যামপুর-জুরাইন মাছ বাজারের (ভাড়ায় বরফ ব্যবসায়ী) ব্যবসায়ী মোহাম্মদ উল্লাহ জামশেদ এর দোকানে কামাল ও ফারুকের নেতৃত্বে ১০/১২জন অজ্ঞাত সন্ত্রাসী হামলা করে। এতে (মোহন ইন্টাপ্রাইজ) দোকানের কর্মচারী (১) মো. ইয়াছিন-৩০ ও মাসুদ-২৭ কে গুরুতর জখম করে এবং দোকানের ক্যাশ বাক্রো রাখা ৩০হাজার টাকা, একটি মোবাইল সেট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল উপর্যপরি হামলা-ভাঙ্চুর করে।

মামলার বাদী মোহাম্মদ উল্লাহ জামশেদ অভিযোগ করেন, স্থানীয় সন্ত্রাসী মাশুক রহমান ও মো. ফারুক দোকানে একাধিকবার চাঁদা দাবি করে। কিন্তু আমি চাঁদা দিতে অস্বিকার করলে উক্ত সন্ত্রাসীরা দোকানে হামলা করে। আজ সোমবারও তারা চাঁদা দাবি করে এবং প্রাণনাশের হুমকী দেয় বলে জানান মামলার বাদী মোহাম্মদ উল্লাহ জামশেদ। এ ব্যাপারে তিনি সংশ্লিষ্ট্র প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।